বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০৪:১২ অপরাহ্ন

কিশোরগঞ্জে মীনা মসজিদের পক্ষ থেকে তুর্কি প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

ডেস্ক নিউজ
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২ এপ্রিল, ২০২১
  • ১০ বার পড়া হয়েছে

তুর্কি প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে আবারও আলোচনায় কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার বড় আজলদীর বাসিন্দা মো: দ্বীন ইসলাম। এবারও নাকি তিনি এই অভিনন্দন জানানোর বিষয়টি স্বপ্নে নির্দেশ পেয়েছেন।

 

এছাড়াও একাধিক কারণ হিসেবে জানা যায়, ৮৬ বছর পর তুরস্কের প্রাচীনতম ঐতিহ্যবাহী আয়া সোফিয়া মসজিদে নামায আদায় করার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার জন্য প্রাণঢালা শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো হয়েছে এই তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান’কে।

 

আজ শুক্রবার (২ এপ্রিল) কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার বড় আজলদীর কান্দা এলাকায় মো: দ্বীন ইসলাম এর প্রতিষ্ঠিত মীনা মসজিদে এই আয়োজন করা হয়। পবিত্র জুম্মার নামাযের পর এ উপলক্ষে দোয়া ও মিলাত মাহফিল হয়। এসময় উপস্থিত সকল মুসল্লিদের মাঝে খাবার ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

 

চলতি বছরের ২১ মার্চ স্বপ্নে নির্দেশনা পেয়ে পাকুন্দিয়া উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরের সামনে অবস্থিত বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালকে ৪০ কেজি ফুল দিয়ে সাজিয়ে মিডিয়ায় আলোচনায় আসে মো: দ্বীন মোহাম্মদ। এর আগেও ২০১৭ সালে টুঙ্গিপাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাজারে নফল নামায পড়ে ৭শ টাকা দামের দুটি কবুতর উড়িয়েছেন স্বপ্নে নির্দেশনা পেয়ে।

 

মো: দ্বীন ইসলামের দাবী তিনি এসব কাজ স্বপ্নে নির্দেশনা পেয়ে করেন। স্বপ্নে আদেশ পেয়ে ২০১৭ মীনা মসজিদ ও ১৪৩৩ হিজরীতে ধর্মীয় শিক্ষার অগ্রগতির জন্য তার এলাকায় একটি মাদ্রাসা নির্মাণ করেছেন যার নাম ইউনূস পাগল ফুরকানিয়া মাদ্রাসা। স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, তার মন অনেক বড়। সামাজিক কাজে তাকে সব সময় সময় পাশে পাওয়া যায়।

 

মীনা মসজিদের ইমাম হাজী মাও. মো: গিয়াস উদ্দিন বলেন, মো: দ্বীন ইসলাম মসজিদটি প্রতিষ্ঠা করার পর থেকেই তিনি এ মসজিদে বিনামূল্যে ইমামতি করছেন। হাজী মো: রিয়াজ উদ্দিন মাষ্টার জানান, তার এই ভালো উদ্যোগকে আমরা সব সময় স্বাগত জানাই। এলাকার সকল মানুষ তাকে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।

স্থানীয় মো: সিরাজুল ইসলাম ও আব্দুল আওয়াল জানান, আমরা প্রায় এই মসজিদে নামায আদায় করতে আসি। মসজিদটি বড় করার জন্য সবাই আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি। সকলে সহযোগিতা করলে দ্রুতই এটা সম্ভব হবে।

 

মো: দ্বীন ইসলাম পেশায় একজন রিক্সাওয়ালা। পরিবারে রয়েছে স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে। ছেলের বয়স আনুমানিক ৯ বছর এবং মেয়ের বয়স ১৪ বছর। ২০০৪ সালে সংসার জীবনে আবদ্ধ হন তিনি। টানাপোড়নে সংসারেও তিনি সামাজিক প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক কাজে সংযুক্ত থাকেন সব সময়।

amena.com.bd

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2021 Onenews24bd.Com
Theme Customized by Le Joe
%d bloggers like this: