বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৯:২৪ অপরাহ্ন

কে এই দেওয়ানবাগী পীর, জানুন আসল পরিচয়

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৩০ বার পড়া হয়েছে
দেওয়ান বাগী

রাজধানীর মতিঝিলের দেওয়ানবাগ দরবার শরিফের পীর মাহবুবে খোদা দেওয়ানবাগী পীর (৭০) মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

 

আজ সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা ৪৮ মিনিটে তিনি ইন্তেকাল করেন। সোমবার সকালে দেওয়ানবাগ দরবার শরীফ থেকে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। দেওয়ানবাগ শরিফের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্যানুযায়ী, দেওয়ানবাগী পীরের নাম মাহবুব-এ খোদা। তবে তিনি ‘দেওয়ানবাগী’ নামে পরিচিত।

 

১৯৪৯ সালের ১৪ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম সৈয়দ আবদুর রশিদ সরদার। মা সৈয়দা জোবেদা খাতুন। ছয় ভাই দুই বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। নিজ এলাকার তালশহর কারিমিয়া আলিয়া মাদ্রাসা থেকে ফাজিল পর্যন্ত পড়াশুনা করেন।

 

ফরিদপুরে চন্দ্রপাড়া দরবারের প্রতিষ্ঠাতা আবুল ফজল সুলতান আহমেদ চন্দ্রপুরীর হাতে বাইয়াত গ্রহণ করেন দেওয়ানবাগী পীর। এরপর তাঁর মেয়ে হামিদা বেগমকে বিয়ে করেন দেওয়ানবাগী। এর সুবাদে শ্বশুরের কাছ থেকে খিলাফত লাভ করেন। তার কিছু দিন পর নিজেই নারায়ণগঞ্জে দেওয়ানবাগ নামক স্থানে একটি আস্তানা গঠন করেন এবং নিজেকে সুফি সম্রাট পরিচয় দেন। সর্বশেষ মতিঝিলের ১৪৭ আরামবাগ, ঢাকা-১০০০ এই ঠিকানায় একটি দরবার স্থাপন করেন দেওয়ানবাগী।

 

এর আগে বেসরকারি টিভি চ্যানেল এনটিভি’র বিরুদ্ধে ১০০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করেছে রাজারবাগ দরবার শরীফ। সোমবার ঢাকা পঞ্চম যুগ্ম জেলা জজ তারিক এজাজের আদালতে এ মামলা দায়ের করা হয়। দরবার শরীফের পীরের নামে সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত, ব্যাপক মিথ্যাচারে পরিপূর্ণ মানহানিকর তথ্য প্রচারের দায়ে এ মামলা হয়। শুনানি শেষে বিচারক বিবাদীদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করেন। বাদী পক্ষে মামলা শুনানি করেন অ্যাডভোকেট নূরে আলম মোস্তফা এবং অ্যাডভোকেট মেসবাহ উদ্দিন সুমন।

 

মামলায় এনটিভি’র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোসাদ্দেক আলী ফালু, প্রধান বার্তা সম্পাদক জহিরুল আলম, বার্তা প্রধান খায়রুল আনোয়ার মুকুল, সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার সফিক শাহীন, নির্বাহী প্রযোজক আহসানুল হক পলাশ, চীফ ক্যামেরাম্যান জিয়া জহির পল্লবকে বিবাদী এবং মিথ্যাচারের কারণে সোহেল চৌধুরী, কমিন শাহ, এম এম সাইফুল্লাহ ও তামান্নাকে মোকাবেলা বিবাদী করা হয়েছে।

 

মামলার বিবরণে বলা হয়, বাদী একজন সম্মানিত এবং প্রজ্ঞাসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব। যিনি সকলের কাছে ঢাকা রাজারবাগ দরবার শরীফের সম্মানিত পীর নামে সুপরিচিত। বংশের দিক থেকে তিনি সাইয়্যিদ। প্রায় অর্ধ শতাব্দী ধরে পীর সাহেবের বিভিন্ন দ্বীনি, গবেষণামূলক ও সামাজিক কর্মকাণ্ডের জন্য দেশ ও বিদেশে অসংখ্য মুরীদ, ভক্ত-আশেকান ও দোয়াপ্রার্থী তৈরী হয়েছে। বাদীর এমন প্রচার-প্রসার ও জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে কতিপয় ভণ্ড, প্রতারক, ধর্মব্যবসায়ী, সন্ত্রাসবাদে বিশ্বাসী, যুদ্ধাপরাধী, দুর্নীতিবাজ ব্যক্তি বাদীর কষ্টার্জিত মান-সম্মান ক্ষুন্ন করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছেন।

 

তারা বাদীর বিরুদ্ধে নানা মিথ্যাচারে পরিপূর্ণ প্রোপাগান্ডা চালিয়ে বাদীর ব্যাপারে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। বাদীর বিরুদ্ধে অপপ্রচারের ধারাবাহিকতায় বিবাদীদের সহযোগিতায় ধারাবাহিক প্রতিবেদন এনটিভিতে প্রচারিত হয়। যা বাদী ও তার প্রতিষ্ঠিত রাজারবাগ দরবার শরীফের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ব্যাপক মিথ্যাচার ও মানহানিকর তথ্য। এজন্য ক্ষতিপূরণ বাবদ এক হাজার কোটি টাকার মামলা দায়ের করা হল।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: