মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন

ছাত্রলীগের ৬৮ শূন্যপদে এলেন যারা

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় সোমবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
ছাত্রলীগের ৬৮ শূন্যপদে এলেন যারা

অবশেষে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শূন্যপদগুলো পূরণ করা হয়েছে। রবিবার (৩১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সংগঠনের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের সই করা সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ৬৮টি শূন্য পদ পূরণের ঘোষণা দেওয়া হয়।
ছাত্রলীগের শূন্যপদগুলোতে যারা স্থান পেয়েছেন তারা হলেন— সহসভাপতি পদে সাইফ উদ্দিন বাবু, সাগর হোসেন সোহাগ, রায়হন কাওসার, রাকিব হোসেন, রানা হামিদ, আনন্দ সাহা পার্থ, শেখ সাগর আহমেদ, শুভ্রদেব হালদার, দেবাশীষ সিকদার সিদ্ধার্থ, আরিফ ইবনে আলী, আরিফ হোসেন রিফাত, জিয়াসমিন শান্তা, তিলোত্তমা সিকদার, শাহারিয়ার সিদ্দিকী শিশিম, ফরিদা পারভীন, উৎপল বিশ্বাস, মোহাম্মদ ওমর ফারুক, মিজানুর রহমান পিকুল, মুরাদ হায়দার টিপু,ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী সজীব, রাকিবুল হাসান নোবেল, খাদিজাতুল কুবরা, মো. মহিন উদ্দিন, রাকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য ও জেসমিন আরা রুমা।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে আব্দুল জাব্বার রাজ, দফতর সম্পাদক ইন্দ্রনীল দেব শর্মা রনি, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মেহেদী হাসান সানি,পাঠাগার সম্পাদক সৈয়দ ইমাম বাকের, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার জামিউস সানি, ধর্মবিষয়ক সম্পাদক তুহিন রেজা, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সেবা বিষয়ক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ ফয়সাল, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক পদে আল আমিন রহমান, উপ-প্রচার সম্পাদক ফেরদৌস মাহমুদ পলাশ, উপ দফতর সম্পাদক সজীব নাত ও মিরাজুল ইসলাম খান শিমুল,
উপ গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক তন্ময় দেবনাথ ও আমান উল্লাহ আমান,উপসংস্কৃতি সম্পাদক মোহাম্মদ মোরশেদুর রহমান আকন্দ, শেখ নাজমুল, মো. মাইনুল হাওলাদার, ইসমাঈল হোসেন, উপ-সমাজসেবা সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত, উপ আন্তর্জাতিক সম্পাদক সামাদ আজাদ জুলফিকার,উপ-পাঠাগার সম্পাদক এম আর মুকুল ইসলাম ও আনোয়ার হোসেন, উপ তথ্য-গবেষণা সম্পাদক আব্দুর রশিদ রাফি ও এহসান পিয়াল, উপ অর্থবিষয়ক সম্পাদক আতিকুল ইসলাম আতিক,উপ-আইন বিষয়ক সম্পাদক শাহেদ খান, উপ স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবা বিষয়ক সম্পাদক রাজেশ বৈশ্য, জেরিন শিকদার, সাধন বিশ্বাস, ও রিজভান আহমেদ, উপছাত্রবৃত্তি সম্পাদক মাহফুজুর রহমান, উপ কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক শাহজাহান ভূঁইয়া শামীম, সহ-সম্পাদক পদে ফারুকুল ইসলাম ফারুক বেপারী, ফাইজুল ইসলাম সজীব, শেখ রেজওয়ান আলী, আয়শা আক্তার সুমি, এম সাইফুল ইসলাম সাইফ, এইচএং রোমান মাহমুদ, মো. রুবেল শিকদার, মীর সাব্বির ও জাহিদুল ইসলাম নোমান, সদস্য পদ পেয়েছেন সাজিদ আহমেদ দীপ্ত ও আলী হোসেন আলম।

এর আগে ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মেলনের পর ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও গোলাম রাব্বানীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়। দুর্নীতি, চাঁদাবাজি, স্বজনপ্রীতিসহ নানা অভিযোগে পূর্ণাঙ্গ মেয়াদে দায়িত্ব পালনের আগেই ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর পদত্যাগ করতে বাধ্য হন এই দুই নেতা। তাদের অব্যাহতির পর সংগঠনটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতির ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান যথাক্রমে আল নাহিয়ান খান জয় ও লেখক ভট্টাচার্য। তিন মাস ভারপ্রাপ্ত থাকার পর ছাত্রলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তাদের পূর্ণাঙ্গ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। এর আগে শোভন ও রাব্বানী দায়িত্ব পাওয়ার এক বছর পর ২০১৯ সালের ১৩ মে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। আর কমিটি ঘোষণার পরপরই প্রশ্ন ওঠে পদ পাওয়া ব্যক্তিদের নিয়ে। অভিযোগ ওঠে, কমিটিতে যোগ্যদের স্থান না দিয়ে রাখা হয়েছে হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি, মাদকসেবী, বিএনপি-জামায়াত ও রাজাকার পরিবারের সন্তান, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কৃত, সন্ত্রাস-চাঁদাবাজিতে যুক্ত, বিবাহিত, সংগঠনে নিষ্ক্রিয় এবং অছাত্ররাও।

এছাড়াও সংগঠনের আগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ তুলে আন্দোলনে নামেন ছাত্রলীগের বঞ্চিত ও পদ না পাওয়া নেতাকর্মীরা। পরে দায়িত্ব গ্রহণের পর ২০১৯ সালের ১৭ ডিসেম্বর জয়-লেখক কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বিতর্কিত ২১ জনের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায়, তাদের পদ শূন্য ঘোষণা করেন। পাশাপাশি আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আরও ১১ জনের পদ শূন্য ঘোষণা করা হয়। এদিকে প্রধানমন্ত্রীর নথি জালিয়াতির মাধ্যমে সিদ্ধান্ত বদলে দেওয়ার অভিযোগে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সহসভাপতি তরিকুল ইসলাম মুমিনকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়। এর বাইরে বিভিন্ন সময় আরও চারটি পদ শূন্য ঘোষণা করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: