মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:১৯ অপরাহ্ন

জেনে নিন ৫টি বৃহৎ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের নামের রহস্য

ওয়ান নিউজ 24 বিডি ডেস্ক
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৮
  • ৪২০ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশ্বের বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর দিকে নজর দিলে আমরা দেখতে পাই নামের বৈচিত্র। নামগুলো সবসময় প্রতিষ্ঠানের কাজের সাথে সম্পর্কিত হয় না। নদীর নাম থেকে শুরু করে ফলের নাম পর্যন্ত কত বিচিত্র নামই না আছে প্রযুক্তির জগতে। আসুন জেনে নেওয়া যাক ৫টি বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের নামকরণের পেছনে কারণ।
স্যামসাং কোরীয় ভাষায় স্যামসাং শব্দের অর্থ তিন তারা। তিনটি গুণকে প্রকাশ করার জন্য এই নাম বেছে নেওয়া হয়। সেগুলো হলো—বিশাল, অসংখ্য এবং ক্ষমতাশালী। রাতের আকাশের নক্ষত্রদের মাঝে আমরা এই গুণ দেখে থাকি।
নকিয়া ১৮৬৫ খ্রিস্টাব্দে নকিয়া তাদের ব্যবসা শুরু করে কাঠ চেলাইয়ের কল দিয়ে। প্রথমে অন্য জায়গায় কল স্থাপন করলেও ১৮৬৮’তে তারা ফিনল্যান্ডের নকিয়া শহরের কাছে নকিয়ানভির্তা নদীর পাড়ে তাদের কল স্থাপন করে। সেখান থেকেই নকিয়া নামটি আসে এবং ১৮৭১ সালে এই নামেই কোম্পানিটি যাত্রা শুরু করে।
অ্যামাজন বিশ্বের সবচাইতে বড় অনলাইন কেনা-বেচার প্লাটফর্ম অ্যামাজন যার যাত্রা শুরু হয় বই বিক্রির মধ্য দিয়ে। তখন তাদের লক্ষ্য ছিল যাদুকরী দ্রুততার সাথে মানুষের হাতে বই পৌঁছে দেওয়া। প্রথমদিকে কোম্পানির নাম ‘কাদাবরা’ হতে চলেছিল। ১৯৯৪ সালে জেফ বেজস এই নামটিকেই নিবন্ধিত করিয়েছিলেন। কিন্তু ১৯৯৫ সালে অনলাইনে তাদের ওয়েবসাইট চালু হলে দেখা গেল তার নাম ‘অ্যামাজন’। পরে আমরা আন বাইয়ার্স রচিত ‘জেফ বেজস: দ্য ফাউন্ডার অফ অ্যামাজন ডট কম’ বই হতে জানতে পারি যে কাদাবরা ডট কম-কে মানুষ ভুল করে কাদাভার ডট কম মনে করতে পারে এমন একটি ভয় ছিল জেফ বেজসের। তাই তিনি নাম পালটে অ্যামাজন রাখেন। এটি পৃথিবীর বৃহত্তম নদীর নাম। জেফের স্বপ্নও ছিল তেমনই বড় যা তিনি নামের মাধ্যমে প্রকাশ করতে চেয়েছিলেন হয়তো।
গুগল এমন একটি ধারণা প্রচলিত আছে যে গুগল (Google) তাদের নামটি ইচ্ছাকৃতভাবে নিয়েছে গুগোল (Googol) শব্দটির ভুল বানান থেকে। গুগোল (Googol) শব্দটি বলতে আসলে বোঝায় ১০-এর পরে ১০০টি শূন্য দিলে যে সংখ্যা দাঁড়ায় তাকে। সার্জে ব্রিন ও ল্যারি পেইজ এই নামকরণের মাধ্যমে বোঝাতে চেয়েছেন যে তাঁরা বিশাল সংখ্যক ডাটা নিয়ে কাজ করবেন। ১৯৯৭ সালে গুগল নামে অনলাইনে ডমেইন নিবন্ধন করা হয়।
অ্যাপল বিশ্বের সবচাইতে বড় কোম্পানিগুলোর একটি অ্যাপল। একটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অথচ ফলের নামে নাম। অল্প বয়সে একটি ভিডিওতে স্টিভ জবস তাঁর এই নামকরণের বিষয়ে বলেছিলেন। ম্যাট্রিক্স ইলেক্ট্রনিক্সের মতো কিছু নামও তাঁর মাথায় ছিল কিন্তু শেষ পর্যন্ত নাম হিসেবে অ্যাপলই ধার্য হয়।
কিন্তু অ্যাপল কেন? এ সম্পর্কে জবস বলেন, ‘এর আংশিক কারণ হলো আমি আপেল খুব পছন্দ করি এবং কিছুটা এ কারণেও যে ফোনবুকে অ্যাপল শব্দটি অ্যাটারি’র (জনপ্রিয় ভিডিও গেইম নির্মাতা প্রতিষ্ঠান) উপরে অবস্থান করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com