সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৭:২৪ অপরাহ্ন

দীর্ঘ ১৩ ঘন্টা পর কমলগঞ্জে পানিতে পড়ে মারা যাওয়া শিশুর জানাযা সম্পন্ন

সালাহউদ্দিন শুভ, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
দীর্ঘ ১৩ ঘন্টা পর কমলগঞ্জে পানিতে পড়ে মারা যাওয়া শিশুর জানাযা সম্পন্ন

পানিতে পড়ে যাওয়া শিশু চিকিৎসকদের অবহেলায় মৃত শিশুটিকে মৃত্যুর দীর্ঘ ১৩ ঘন্টা পর ২৩ সেপ্টেম্বর বৃহম্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ঘোড়ামারাস্থ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হযেছে। এসময় নিহত শিশুটিকে এক নজর দেখার জন্য এলাকায় মানুষের ঢল নামে এবং এক হৃদয় বিদায়ক দৃশ্যের অবতারনা হয়।

শিশুটির মৃত্যুর বিষয়ে জানতে চাইলে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মাহবুবুল আলম ভূইয়া বলেন,‘আমি ঘটনার সময় অফিসিয়াল কাজে সিলেটে ছিলাম। আসার পর জানতে পারলাম,শিশুটি পানিতে পরে ৯টার দিকে। হাসপাতালে আসার আগেই সকাল ১১টার দিকেই তার মৃত্যু হয়। ডাক্তারের কোন গাফলতি ছিলো না। কনিকা রানী সিংহার মৃত্যুর সত্যতা ঠিক ছিলো। শিশুটি নড়াচড়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে বলেন, মানুষ মারা যাওয়ার অনেক পর পর্যন্ত শারিরীক কিছু অনুভুতি দৃষ্টি গোছড় হওয়া এবং নাক মুখ দিয়ে লালা বের হতে দেখা যায়। এটা চিকিৎসা বিঞ্জানে বেঁচে থাকার কোন প্রমাণ নয়।’

উল্লেখ্য, শিশুর চাচা বিল্লাল হোসেন বলেন, ‘আদমপুর ইউনিয়নের ঘোড়ামারা গ্রামে মাসুক মিয়ার ছেলে ৩ বছরের শিশু আশরাফুল ২২সেপ্টেম্বর সকাল ৯টার সময় বাড়ির পাশে পুকুরের পানিতে পড়ে যায়। সেখান থেকে উদ্ধার করে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কনিকা রানী সিনহ্া শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত ঘোষণার পর শিশুটিকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পর দাফন-কাফনের জন্য ব্যবস্থা করার সময় হঠাৎ নড়াচড়া করতে দেখা যায়। তখন স্থানীয়রা জীবিত আছে বললে,আবারও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তখন হাসপাতালের ডাক্তার শিশুটিকে ভর্তি না করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার জন্য বলে। শিশুটিকে মৌলভীবাজার জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে দুপুর ১টা ৫০ মিনিটের সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করলেন। লাশের সুরত হাল রির্পোট তৈরী করে গভীর রাতে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দিলে লাশ বাড়ীতে নিয়ে আসা হয়।

এ বিষয়ে নিহত শিশুর চাচা বিল্লাল হোসেন আরো বলেন,সকাল সাড়ে ৯টায় আমরা পারিবারিক কবরস্থানে দাফনের কাজ সম্পূর্ণ করি। শিশুটি মারা যাওয়ার নিয়ে এত কিছু হয়ে গেলো,এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান,আমরা গরীব মানুষ,কি আর করবো আল্লাহ দেখেছেন,এখন আল্লাহই বিচার করবেন।’

তবে এ বিষয়ে কমলগঞ্জ থানার (ওসি তদস্ত)সোহেল রানা বলেন,‘এ ব্যাপারে শিশুটির অভিভাবকদের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ দেয়া হয়নি। তবে থানায় অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে।’

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2021 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: