বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১, ০৮:২৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সংবলিত বিলবোর্ড ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ

আলী হায়দার, কুলিয়ারচর, কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় বুধবার, ১০ মার্চ, ২০২১
  • ১৪ বার পড়া হয়েছে
বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সংবলিত বিলবোর্ড ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ

কুলিয়ারচরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভৈরব-কুলিয়ারচরের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নাজমুল হাসান পাপন, কুলিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রধান উপদেষ্টা- বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মুছা মিয়া (সিআইপি) ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইমতিয়াজ বিন মুছা জিসান-এর ছবি সংবলিত ২৬শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসকে সামনে রেখে স্বাধীনতা যুদ্ধের সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়ে টানানো ব্যানার পোস্টার ভাঙচুর করার প্রতিবাদে গণমিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ) বিকাল ৪ টায় উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের আনন্দ বাজার থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে ফরিদপুর মাজার সংলগ্ন মামুন সুপার মার্কেটের সামনে গিয়ে এক সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভার মাধ্যমে শেষ হয়।

জানা যায়, এর আগে স্বাধীনতার ৫০ বছর পুর্তি ও সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ৭১-এর স্বাধীনতা যুদ্ধে নিহত সকল বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী জানিয়ে সাবেক ছাত্র নেতা কুলিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৭নং ফরিদপুর ইউনিয়ন থেকে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী মোহাম্মদ মুক্তিমামুদ খোকার পক্ষকে স্থানীয় আওয়ামী লীগসহ এর সকল সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা ইউনিয়নের বিভিন্ন হাটবাজার, রাস্তায় ও এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ব্যানার ও বিলবোর্ড টানিয়ে দেয়। এর একদিন পর ৭ই মার্চ সোমবার এই ব্যানার বিলবোর্ড ফরিদপুর মাজার এলাকর কিছু কতিপয় দূর্বৃত্ত ভেঙ্গে ছিড়ে মাটিতে ফেলে পদদলিত করে জাতির পিতা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ সকলকে অবমাননা করে। আর এ ঘটনার প্রতিবাদে গণমিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিবাদ সভায় মোহাম্মদ মুক্তিমামুদ খোকা তার বক্তব্যে বলেন, ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে স্থানীয় নেতৃবৃন্দরা আমার পক্ষ থেকে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী জানিয়ে ব্যানার বিলবোর্ড করে এলাকার বিভিন্ন স্থানে টানানোর পর ফরিদপুর মাজার এলাকার কতিপয় কিছু লোক কিছু ব্যানার বিলবোর্ড ভাংচুর করে মাটিেেত ফেলে দিয়ে পদদলিত করেন। তিনি এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, যারা এ কাজ করছেন আমি তাদের নাম বলতে চাই না। তবে আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি আমার প্রতিপক্ষ একটি গ্রুপ এ ঘটনার সাথে জড়িত। আমি তাদেরকে ভালো করে চিনি তারা রাজাকারের সন্তান। তিনি আরো বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ফরিদপুর ইউনিয়নবাসীকে সাথে নিয়ে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশা করায় তারা আমার জনমতে ইর্ষান্বিত হয়ে এই ঘৃনিত কাজ করছেন। এক পর্যায়ে তিনি হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, আমি হঠাৎ করে আসা আওয়ামী লীগ নয়, আমার সোনার যৌবন এই আওয়ামী লীগের জন্য আমি বিসর্জন দিয়েছি। সে হিসেবে আমার উপর যেকোনো আঘাত আসলে আমি তা মেনে নিলেও ভবিষ্যতে আমার নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের কোনো নেতৃবৃন্দের প্রতি আঘাত বা অবমাননা করলে কাউকে ছাড় দেবো না। তিনি এ ঘটানা তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এ সময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, ফরিদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোঃ শহিদুল ইসলাম শহিদ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক মোঃ মনির হোসেন কামাল, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও আইন ও মানবাধিকার সুরক্ষা ফাউন্ডেশন কুলিয়ারচর উপজেলা শাখার সভাপতি বজলুল করিম ফালু, ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও কুলিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ রফিকুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য এস এম শামীম, ফরিদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক মোঃ আলামিন ভূঁইয়া টিংকু, উপজেলা যুবলীগের অন্যতম নেতা মাহমুদুল হাসান শাহেল, ফরিদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলমগীর হোসেন, ফরিদপুর ইউনিয়ন জিল্লুর রহমান পরিষদের সভাপতি মোঃ কামাল হোসেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য মোঃ জসিম উদ্দিন, ফরিদপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি মোঃ আবুল কালাল আজাদ ও যুবলীগ নেতা মোঃ আবুল কালাম, ফরিদপুর ইউপি সদস্য মোঃ সাইফুল ইসলাম সবুজ, সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ আক্কাস মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ আসাদ মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ মস্তু মিয়া, ফরিদপুর ইউনিয়ন ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ জীবন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মহসিন, সাবেক সভাপতি মোঃ ইন্নছ মিয়া, ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল সাত্তার ও ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ হারিছ মিয়া, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ হেদায়েত উল্লাহ মেম্বার, যুবলীগের সভাপতি মোঃ আক্কাস মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ মানিক মিয়া ও ৩নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ভবেশ চন্দ্র বিশ্বাস ও ফরিদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক আশরাফ কামাল রাজন প্রমুখ।

amena.com.bd

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2021 Onenews24bd.Com
Theme Customized by Le Joe
%d bloggers like this: