বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৭:১২ অপরাহ্ন

ভৈরবে প্রকৌশলী মফিজ খানের অপসারণ দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

ওয়ান নিউজ 24 বিডি ডেস্ক
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০১৯

হৃদয় আজাদ :
অনিয়ম, দূর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগে ভৈরবের শিমুলকান্দি বিদ্যুৎ অফিসের আবাসিক সহকারি প্রকৌশলী মফিজ উদ্দিন খানের অপসারণ দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসি । আজ সোমবার দুপুরে ভৈরব-মেন্দিপুর সড়কের শিমুল কান্দি ইউনিয়নের তেয়ারীরচর বাজারে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে এলাকাবাসি ও ভুক্তভোগী বিদ্যুৎ গ্রাহকরা ।

মানববন্ধনে শ্রী-নগর ইউনিয়নের ভুক্তভোগী গ্রাহক জজ মিয়া, জাকির মিয়া, নজরুল ইসলাম হান্নান, গজারিয়া ইউনিয়নের ইসলাম উদ্দীন, জাফর ইকবাল, ইব্রাহিম মিয়া, শাহিন মিয়াসহ আরো অনেকেই অভিযোগ জানান আবাসিক সহকারি প্রকৌশলী মফিজ উদ্দিন খান শিমুলকান্দি বিদ্যুৎ অফিসে যোগদানের পর থেকে নতুন লাইনের সংযোগ নিতে গেলে স্থানীয় দালাল চক্রের মাধ্যমে ঘুষ নিয়ে থাকেন । ঘুষের টাকা না দিলে নানা অজুহাতে মাসের পর মাস হয়রানি করে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয় না । আবার ইরি -বোরো স্কীমের সেচ কাজে ব্যবহৃত বিদ্যুৎ সংযোগে কোনো মিটার সংযোগ না দিয়ে মোটা অংকের গড় বিল করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে । এছাড়াও বিদ্যুতের লাইন মেরামত না করে মেরামত বাবদ খরচ দেখিয়ে প্রতিমাসে ৫০/৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে । ক্ষতিগ্রস্থহকরা অভিযোগ করে আরো বলেন এলাকাবাসীর কাছ থেকে ১৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে এসটি ও এলটি আইন কর্তৃপক্ষের অনুমোদনবিহীন ট্রান্সফরমারসহ শ্রী-নগর মকবুল মাস্টারের বাড়ী থেকে রায়হান মাষ্টারের বাড়ী পর্যন্ত ২০টি খুঁটিঁ বসিয়ে লাইনটি চালু করে দিয়েছেন । ২০১৮ সালের আগস্ট মাসে বিদ্যুৎ বিলে অতিরিক্ত ইউনিট যোগ করে গড় বিলের নাম করে গ্রাহকদের কাছ থেকে অতিরিক্ত বিল আদায় করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে । এ-বিষয়ে স্থানীয় গ্রাহকরা মফিজ খানের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান আশুগঞ্জ থেকে ভৈরবে বিদ্যুৎ পৌঁছতে যে লস হয় তা পূরণের জন্য ভৈরব বিদ্যুৎ অফিসের আবাসিক নির্বাহী প্রকৌশলীর অনুমতিক্রমে ২% গড় বাড়তি বিল প্রদান করা হয়েছিল । তাছাড়াও আবাসিক প্রকৌশলীর নির্দেশে লাইনম্যান মিজান ক্যাপিটাল মিটারের এজেন্ট এনে তার অফিসের আলমারিতে মিটার রেখে বাণিজ্য করছেন ।

এব্যাপারে অভিযুক্ত শিমুলকান্দি বিদ্যুৎ অফিসের আবাসিক সহকারি প্রকৌশলী মফিজ উদ্দীন খানের সাথে কয়েক দফায় যোগাযোগ করলেও তিনি সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে রাজি হননি।

এ সকল বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে শিমুলকান্দি আবাসিক বিদ্যুৎ গ্রাহকরা গত ২৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রী. তারিখে তদন্ত ও শৃঙ্খলা পরিদপ্তর বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন । কিন্ত লিখিত অভিযোগ দেয়ার পরও কর্তৃপক্ষ কোন প্রকার ব্যবস্থা না নেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিদ্যুৎমন্ত্রীসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান আন্দোলনকারীরা।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2022 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: