রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ১১:৫০ অপরাহ্ন

ভৈরবে সহকর্মীদের অবহেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শ্রমিকের মৃত্যু

ওয়ান নিউজ 24 বিডি ডেস্ক
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০১৯
বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে কর্মরত কারিগর নিচে পড়ার সময় মোবাইলে ধারণকৃত

হৃদয় আজাদ :

ভৈরবে শুক্রবার দুপুরে বিদ্যুতের লাইন মেরামত করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে হয়ে বিল্লাল মিয়া (৪৫) নামে বিদ্যুৎ শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। বিল্লালের এই মৃত্যুর জন্য বিদ্যুৎ অফিসের কতিপয় সহকর্মীদের অবহেলা দায়ী বলে দাবী করলেন ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা।
জানা গেছে , নিহত বিল্লাল শহরের আমলা পাড়া গ্রামের ছিদ্দিক মিয়ার পুত্র । এ ঘটনায় পরিবারের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে । প্রত্যক্ষদর্শী সাব্বির মিয়া, মহসিন মিয়াসহ কমলপুর গ্রামের অনেকেই জানান , শুক্রবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে কমলপুর ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার খুঁটিতে একটি ওয়াই ফাই ইন্টারনেট ক্যাবলে আগুন ধরে যায় । পরে ভৈরব ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১ ঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নেভাতে সক্ষম হয় । এ ঘটনায় আজ দুপুরে ভৈরব বিদ্যুৎ অফিসের ৪/৫ জন কর্মচারী নিহত বিল্লালকে সাথে নিয়ে লাইন মেরামতে আসে । এসময় ৩৩ হাজার কেভি ভোল্টেজের লাইন চেক না করে বিল্লালকে লাইন মেরামতের মই দিয়ে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে উঠানো হয় । খুঁটিঁতে উঠার সাথে সাথে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে তার শরীরের কিছু অংশ পুড়ে যায় এবং নীচে পাকা সড়কের উপর পড়ে গুরুতর আহত হয়। পরে তার সাথে আসা সহকর্মীরা ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিল্লালকে মৃত ঘোষণা করেন ।
এ বিষয়ে নিহতের পিতা ছিদ্দিক মিয়া ও তার স্ত্রী স্থানীয় গণমাধ্যমের কর্মীদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, সাব ইঞ্জিনিয়ারে অর্ডারেই কাজ করতে গিয়েছিল । এ ব্যাপারে তারা গণমাধ্যমের সাথে আরো কথা বলতে চাইলে স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল তাদেরকে সরিয়ে নেয় ।
এ বিষয়ে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ রিয়াদ আজিম জানান, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে আহত বিল্লাল মিয়া হাসপাতালে পৌঁছার আগেই মারা যান । সহকর্মীরা ইসিজির কথা বলে হাসপাতাল থেকে মরদেহ নিয়ে যায়।
এ বিষয়ে ভৈরব বিদ্যুৎ অফিসের সহকারি প্রকৌশলী তানভির পারভেজ জানান, নিহত বিল্লাল মিয়া তার অফিসের কোন কর্মচারী নন এবং লাইন মেরামতে তাকে আমরা কিছু বলিনি। তবে সে এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন মানুষের অর্ডারে অর্থের বিনিময়ে বিদ্যুতের কাজ করে থাকেন। লাইন মেরামতে দূর্ঘটনায় আহতের কথাশুনে বিদ্যুৎ অফিসের গাড়ী দিয়ে তার অফিসের কর্মচারীরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিল বলে সে স্বীকার করেন।
এব্যাপারে ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, বিদ্যুস্পৃষ্টে নিহতের ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2022 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: