মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ১২:৩৩ অপরাহ্ন

লালমনিরহাটে দেখা মিলল পৃথিবীর ক্ষুদ্রতম চঞ্চল পাখির

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় শনিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২০

পৃথিবীর ক্ষুদ্রতম ও বিরল একটি পাখি হামিং বার্ড। সাধারণত শীতপ্রধান দেশে তাদের দেখতে পাওয়া যায়। বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) এক প্রতিবেদনে জানায়, লালমনিরহাটে দেখা মিলেছে এই পাখির।

 

সেখানে বলা হয়, জেলার আদিতমারী থানার মূল ফটকের পাশের বাগানে হাসনাহেনা ফুলের মনোমুগ্ধকর মিষ্টি সুগন্ধে ক্যাম্পাস মৌ-মৌ করছে। এক বিকেলে ওসিসহ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তার চোখ পড়ে ফুলের থোকার ওপর। সেখানে এক জোড়া ছোট চঞ্চল পাখি উড়ে-উড়ে ফুলে ঠোঁট ডুবিয়ে মধু খাচ্ছে। পরে তারা বুঝতে পারেন এই পাখিগুলো হামিং বার্ড।

এটি বৃহস্পতিবার শেষ বিকেলের ঘটনা। আদিতমারী থানার ওসি মো. সাইফুল ইসলাম জানান, পৃথিবীর ক্ষুদ্রতম ও বিরল পাখি হামিং বার্ড প্রাকৃতিক পরিবেশে মুক্ত অবস্থায় থানা চত্বরে দেখে বিস্মিত হয়েছি। একই সঙ্গে আনন্দিত হয়েছে। পাখিটিকে নিরাপদ আশ্রয়স্থল দিতে কোলাহলমুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়েছে, দেখি সেখানে পুনরায় ফিরে আসে কিনা।

এ সময় এসআই মাহমুদুল পাখির স্থিরচিত্র ও ভিডিওচিত্র তোলেন। তবে পাখিটি এত বেশি চঞ্চল তাই মোবাইলে স্পষ্ট ছবি তোলা প্রায় অসম্ভব। মাহমুদুল জানান, এক জোড়া বড়-বড় মৌমাছির মতো দেখতে পাখি এখানে উড়ে-উড়ে মধু খাওয়ার দৃশ্য দেখেছি। ছবি ও ভিডিও তুলে রেখেছি। পরে গুগলে সার্চ দিয়ে দেখে এই পাখি দুইটি বিরল প্রজাতির শীতের দেশের পাখি হামিং বার্ড।

জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা মো. সাইদুল রহমান জানান, হামিং বার্ড বাংলাদেশের জঙ্গলে আছে। পুরোনো ঝোপঝাড় ও ফুলের বাগানে মধু খেতে তারা আসে। আমাদের দেশে পাখিটি তেমন সচরাচর দেখা যায় না। এটা একটি বিরল প্রজাতির পাখি। করোনায় পরিবেশের দূষণমুক্ত ও কোলাহলমুক্ত পরিবেশ পাওয়ায় তাদের জনসম্মুখে দেখা যেতে পারে। হামিং বার্ড পৃথিবীর সব থেকে ক্ষুদ্রতম পাখি। যেটি বাংলাদেশে বিরল প্রজাতি। হিমালয়ের পাদদেশ লালমনিরহাট ও পাশের জেলা পঞ্চগড়। শীতে এরা এখানে খাবারের সন্ধানে হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে আসে। বাংলাদেশে প্রায় সাত শত প্রজাতির পাখি আছে। পরিচিতি আছে এমন পাখি সম্পর্কে খুব ধারণা আছে।

 

ক্ষুদ্রতম এ পাখি হামিং বার্ড উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকায় দেখা মেলে। তিন শতাধিক প্রজাতি রয়েছে তাদের। সব থেকে ছোট আকৃতির হামিং বার্ড পাওয়া যায় কিউবায়। এর দৈর্ঘ্য প্রায় আড়াই ইঞ্চি, ওজন দুই গ্রামের নিচে। এরা বিরতিহীনভাবে হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে সক্ষম। হামিং বার্ড প্রতি সেকেন্ডে ১২-৯০ বার ডানা ঝাপ্টাতে পারে। এই পাখি খুব দ্রুততম সময়ে সামনে, পেছন, ওপরে ও নিচে উড়তে পারে। হামিং বার্ড বেশ শক্তিশালী পাখি। এদের ঠোঁট বেশ লম্বাকৃতির হয়।

 

ফুলের মধুই এদের প্রধান খাদ্য। একটি হামিং বার্ড দৈনিক ১ হাজার ৫০০ ফুলের মধু খেয়ে থাকে। দিনের অধিকাংশ সময় এরা ফুলের মধু খেয়ে কেটে দেয়। এদের পাখা ঝাপটানোর বৈশিষ্ট্য এদের শরীরে শক্তি জোগাতে খাদ্যের চাহিদা বাড়িয়ে দিয়েছে। তাই সৌখিনভাবে পোষা একেবারেই অসম্ভব। তাদের খাদ্য গ্রহণের প্রক্রিয়া তাদের ব্যতিক্রম করে রেখেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: