রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১০:০০ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :

লিজ নিয়ে ঈদগাহের জায়গা দখলের অভিযোগ এলাকাবাসীর চরম ক্ষোভ

আলী হায়দার, কুলিয়ারচর, কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
লিজ নিয়ে ঈদগাহের জায়গা দখলের অভিযোগ এলাকাবাসীর চরম ক্ষোভ

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার উছমানপুর ইউনিয়নের পূর্ব ভাগলপুর ঈদগাহ মাঠের নামে ওয়াকফকৃত জায়গা (পুকুর) মসজিদ কমিটির কাছ থেকে লিজ নিয়ে, ভূয়া কমিটি বানিযয়ে ৬ বছর ধরে ঈদগাহ পুকুর দখল করার অভিযোগ উঠেছে সাবেক স্থানীয় মেম্বার মজলু মিয়ার বিরুদ্ধে। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

শনিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টায় এ নিয়ে কুলিয়ারচর থানায় সামাজিক সমাধানের উদ্দেশ্যে সমাধানের চেষ্টা হলেও মজলু মিয়া, পুলিশ ও দরবারিদের ২ ঘন্টা বসিয়ে রেখে তাদের তোয়াক্কা না করে দরবারে অনুপস্থিত থাকে। এর আগে, এই বিষয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে একাধিকবার বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা হলেও অভিযুক্ত মজলু মিয়া তাদের অমান্য করেই, জোরপূর্বক ঈদগাহের পুকুর দখলে রেখে উল্টো স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে পিটিশন দায়ের করে। এ নিয়ে এলাকার সর্বসাধারণের ক্ষোভ চরম আকার ধারণ করেছে।

জানা যায়, ২০১৩ সালে মসজিদ কমিটির কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা বাৎসরিক মূল্যে তিন বছরের জন্য লিজ নেয় শাহ কালাম। শাহ কালামের তিন বছর লিজের সময় শেষ হওয়ার ৪ মাস পূর্বে ২০১৫ সালের শেষ দিকে শাহ কালামের কাছ থেকে কৌশলে ভাড়া নেয় সাবেক মেম্বার মজলু মিয়া। এর পর তিনি পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ভূয়া কমিটি বানিয়ে, কমিটির সদস্যদের সাইন নকল করে বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসকের কার্যালয় থেকে লিজ নিয়েছে মর্মে পুকুরটি ভোগদখল করে আসছে। এই বিষয়ে তার ভূয়া কমিটির সকল সদস্য তাদেরকে অবগত না করে কমিটিতে তাদের নাম ব্যবহার করায় ও তাদের সাইন নকল করার অভিযোগে কুলিয়ারচর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন এবং সরজমিনে কমিটির কোনো অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি মর্মে কুলিয়ারচর উপজেলা ভূমি অফিস থেকে একাধিক বার জেলা প্রশাসক বরাবর নোটিশ জারি করা হয়েছে।

এই নিয়ে মজলু মিয়ার গঠিত কমিটির সদস্যরা বলেন, মজলু মিয়া আমাদের নাম ব্যবহার করে ও সাইন নকল করে এলাকাবাসী ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গিয়ে যেভাবে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের জায়গা নিজের দখলে রেখেছে এটি অত্যন্ত নিন্দনীয় এবং আমাদের না জানিয়ে আমাদের নাম ব্যবহার করে ও সাইন নকল করে যে জালিয়াতি করেছে, তার উপযুক্ত বিচার চাই।

এই বিষয়ে মজলু মিয়া বলেন, আমার কাছে ওয়াকফ অফিসের বৈধ কাগজ আছে। কাগজ মূলেই পুকুর ভোগ করছি।
এই বিষয়ে কুলিয়ারচর থানার ওসি তদন্ত মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, বিষয়টি নিয়ে বাদি বিবাদিদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2021 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: