বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০, ০৮:০৯ অপরাহ্ন

সরিয়ে নেয়া হলো বিতর্কিত ওয়েবসিরিজ

বিনোদন ডেস্ক
  • আপডেট সময় বুধবার, ২৪ জুন, ২০২০
  • ২৪২ বার পড়া হয়েছে

হঠাৎ করে তিনটি ওয়েবসিরিজ যেন আগুন ধরিয়ে দিল। পক্ষে বিপক্ষে শুরু হলো তুমুল লড়াই। বলা যায় মিডিয়াও এই ইস্যুতে দুই ভাগ হয়ে গেল। একপক্ষ এমন সিরিজের পক্ষে আরেক পক্ষ কোনভাবেই নয়। এমন একটি মুহুর্তে তথ্য মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদও বিষয়টিকে ভালোভাবে নিতে পারেননি।

তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে এক আলোচনায় বলেন, ‘আমাদের দেশের কৃষ্টি কালচারকে বাদ দিয়ে অশ্লীল ওয়েবসিরিজ নির্মাণ অপরাধ। এটি কোনোভাবেই কাম্য নয়। এরপরই দুটি ওয়েবসিরিজ সরিয়ে ফেলা হয় বলে জানা গেছে। তবে ‘আগস্ট ১৪’ নামের সিরিজটি সংশোধন করে অ্যাপে রাখা হয়েছে বলেও জানা যায়।

 

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান রেড ডট ডিজিটাল লিমিটেড এর ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট হলো ‘বিঞ্জ’। এই প্রতিষ্ঠানের মার্কেটিং প্রধান নূর ঈ তাজরিয়ান খান গণমাধ্যমকে বলেন, অ্যাপ থেকে পাইরেসি হয়ে এরমধ্যে তাদের তিনটি সিরিজ ইউটিউবে ছড়িয়ে গিয়েছিল। সেগুলো ইউটিউব থেকে বন্ধ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা এখনো পুরো বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করিনি। দর্শকরা কেমন প্রতিক্রিয়া দেয় দেখছিলাম। কিন্তু সেটি পাইরেসি হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে যায়। পৌঁছে যায় সর্বস্তরের দর্শকদের কাছে। কিন্তু এই সিরিজগুলো সবার জন্য বানানো হয়নি। তবুও সবার প্রতিক্রিয়ার প্রতি সম্মান জানিয়েই অ্যাপ থেকে দুটো সিরিজ তুলে নিয়েছি। আর কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে ‘আগষ্ট ১৪’ এ।

 

এদিকে দেশের ১১৮ জন নির্মাতা এই ধরনের ওয়েবসিরিজ নির্মাণের পক্ষে মত দিয়েছেন। তারা যুক্তি হিসেবে বলেন, সারা বিশ্বেই এখন সম্পর্কের সূত্র ধরে এমন সিরিজ নির্মিত হচ্ছে তাহলে আমাদের দেশে সমস্যা কেন?

 

আবার অন্য দিকে ৭৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি এমন অশ্লীল ওয়েবসিরিজ তৈরির বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন। তারা বলছেন, সিরিজের নামে যে অশ্লীলতা করা হয়েছে সেটা অমার্জনীয়। আমাদের সংস্কৃতির সঙ্গে এটা যায় না।

 

আলোচিত তিনটি ওয়েব সিরিজ হলো- ওয়াহিদ তারিকের ‘বুমেরাং’, সুমন আনোয়ারের ‘সদরঘাটের টাইগার’ ও শিহাব শাহীনের ‘আগস্ট ১৪’। ‘বিঞ্জ’ নামক ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট থেকেই এগুলো মুক্তি দেওয়া হয়েছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com