শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১১:২৪ অপরাহ্ন

হাওরের উৎকণ্ঠার ধান কৃষকের গোলায় উঠলো অবশেষে

দিলীপ কুমার সাহা, নিকলি, কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১২ মে, ২০২২
হাওরের উৎকণ্ঠার ধান কৃষকের গোলায় উঠলো অবশেষে

চরম উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠার মধ্য দিয়ে শেষ হলো কিশোরগঞ্জের নিকলীর হাওরের ৯৮% বোরো ধান কাটা। ধান ঘরে তুলতে পেরে খুশি কৃষক। এর আগে কষ্টের ধান ঘরে তুলতে পারবেন কি না ভেবে দুশ্চিন্তায় ছিলেন তারা।

কৃষকদের দুশ্চিন্তা বেড়ে যায় যখন উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নিম্নাঞ্চল তলিয়ে যায় হাওরের বোরো ফসল। একে একে উপজেলার হাওরের বিভিন্ন ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল তলিয়ে যেতে থাকে সোনালী ফসল। ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধগুলোতে ফাটল দেখা যায়। বাঁধগুলো রক্ষায় দিনরাত স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করেন হাওরের কৃষকরা। ফসল তলিয়ে যাওয়ার ভয়ে কাটতে থাকেন আধাপাকা ধান। সেই আধাপাকা ধান ঘরে তুলতে পেরে খুশি কৃষকরা। কাটা ধান শুকিয়ে এখন বস্তাায় ভরতে ব্যস্ত শিশু থেকে শুরু করেন কিষান-কিষানিরা।

নিকলী উপজেলার সিংপুর হাওরের কৃষক কাবিল মিয়া বলেন, হাওরের ধান ঘরে তুলতে পেরে সত্যি খুব আনন্দ লাগছে। যাই তুলতে পেরেছি ছেলেমেয়েকে নিয়ে শান্তিতে দুমুটো ভাত খেয়ে চলতে পারবো।
উপজেলার গোড়াদীঘা হাওরের কৃষক রইছ মিয়া বলেন, যেভাবে ধনু নদীর পানি বাড়ছিল,  তখন মনে হয়েছিল হাওরের বাঁধ ভাঙে সব বোরো ফসল তলিয়ে যাবে। ভেবেছিলাম একমুঠো ধানও ঘরে তুলতে পারবো না। শেষ পর্যন্ত ধান ঘরে তুলতে পেরে আনন্দ লাগছে।’

সিংপুর হাওরের আরেক কৃষক গোলাপ মিয়া বলেন, জোয়রার হাওরের বাঁধে যখন ফাটল দেখা দেয় তখন থেকে পরিবারের সবাইকে নিয়ে আধাপাকা ধান কাটতে শুরু করি। কারণ পানিতে তলিয়ে যাওয়ার চেয়ে আধা কাঁচা ধান কাটাই অনেক ভালো।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর উপজেলার ৬০ টি ছোট-বড় হাওরে ৩৬ হাজার ২৭৫ একর জমিতে ধানের চাষাবাদ হয়েছে। তার মধ্যে বি-২৮ জাতের ধানে চিটা ও পাহাড়ি ঢলে নিম্নাঞ্চল তলিয়ে যায় দুই হাজার একর বোরো ধান। তবে এরই মধ্যে হাওরের ৯৮% ধান কাটা শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে কৃষি বিভাগ।

নিকলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আবু হাসান বলেন, অনেক কষ্টের পর কৃষকরা হাওরের ধান ঘরে তুলতে পেরেছেন।

নিকলী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন, হাওরে ধান কাটা ৯৮% শেষ হয়েছে। উপজেলা জারুইতলা ও গুরুই হাওরের উঁচু জায়গায় জমি রয়েছে সেগুলোতে ধান কাটা বাকি রয়েছে এক সপ্তাহের মধ্যে বোরো ধান কাটা শেষ হবে। যেসব কৃষক বি-২৮ জাতের ধানে চিটা ও পাহাড়ি ঢলে নিম্নাঞ্চল তলিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের তালিকা তৈরি করে হচ্ছে।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2022 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: