শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০২:৫১ অপরাহ্ন

হামলায় গর্ভের জোড়া শিশুর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ফের হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট

আলী হায়দার, কুলিয়ারচর, কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় রবিবার, ৭ আগস্ট, ২০২২
হামলায় গর্ভের জোড়া শিশুর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ফের হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট
কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড নোয়াগাঁও-বেপারীপাড়ায় ঝালমুড়ি নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় হামলার শিকার গর্ভবতী নারীর গর্ভের জোড়া শিশুর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফের হামলা, ভাঙচুর, লুটপাটের ঘটনা ঘটছে। এ ঘটনার জের ধরে উভয় পক্ষের মাঝে পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।
শনিবার (৬ আগস্ট) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ফের হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ৬টি ঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এর আগে ঝালমুড়ি নিয়ে গত ২৬ জুন কুলিয়ারচর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের বর্তমান ও সাবেক কমিশনারের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের ২৫ জন আহত সহ ১৫টি দোকান ও বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট হয়। এ সময় ঝালমুড়ি বিক্রেতা আল আমিনের গর্ভবর্ত স্ত্রী হামলার শিকার হন। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ কুলিয়ারচর থানার পাল্টাপাল্টি মামলা দায়ের করেন। 
গত বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) সেই সংঘর্ষে হামলার শিকার গর্ভবতী নারীর গর্ভের জোড়া শিশু মৃত্যু হলে, এ নিয়ে ফের উত্তপ্ত হয়ে এলাকাবাসী। সাবেক কমিশনার অলিউল্লাহ সমর্থক নাঈম, সাত্তার, আমিন, মুসলিম কুলসুম বলেন, বর্তমান কাউন্সিলর হুমায়ুন কবীরের লোকজন সকালে হঠাৎ করে আমাদের বাড়িতে হামলা করে। এ সময় হামলাকারীরা আমাদের বাড়িঘরে ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়ে টাকা পয়সা, স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়।
এই বিষয়ে সাবেক কমিশনার অলিউল্লাহ বলেন, গর্ভের জোড়া শিশু মৃত্যুর ঘটনাটি আমাকে ফাঁসানোর জন্য একটি গভীর চক্রান্ত। মূলত ঝগড়ার দুই দিন আগে আল আমিন তার বউ এর সাথে ঝগড়া করে, তাকে মারধর করে। যা এলাকার সবাই জানে। কিন্তু প্রতিপক্ষ গর্ভবতী নারী হামলার শিকার উল্লেখ করে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে।
বর্তমান কমিশনার হুমায়ুন কবির নূরী বলেন, প্রতিটি ঝগড়া মূলত আমার সাথে নির্বাচনে পরাজয়ের ক্ষোভ। নির্বাচনে পরাজিত হওয়ার পর থেকেই তার লোকদের দিয়ে আমাদের লোকদের উপর একের পর এক হামলা করেই চলেছে। সর্বশেষ তাদের হামলায় গর্ভবতী নারীর গর্ভের জোড়া শিশুর মৃত্যু হয়।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও প.প. কর্মকর্তা ডাঃ আদনান আখতার বলেন, গর্ভবতী নারী অপূর্ণ বয়সে (৬মাস+) গর্ভপাত করা দুইটি মৃত সন্তান নিয়ে আসলে নবজাতকদের মাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
এ ব্যাপারে কুলিয়াচর থানার ওসি মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা বলেন, হামলা ঘটনায় কেউ অভিযোগ দায়ের করেনি। নবজাতকের মৃত্যুর ডাক্তারী রিপোর্ট ও তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2022 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: