মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০, ০৬:০৮ পূর্বাহ্ন

হোসেনপুরে রৌদ্র, বৃষ্টি উপেক্ষা করে করোনা প্রতিরোধে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন সেই এসিল্যান্ড

সঞ্জিত চন্দ্র শীল
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০
  • ২৪৬ বার পড়া হয়েছে
প্রাণঘাতী নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণে রৌদ্র, বৃষ্টি উপেক্ষা করে, অদৃশ্য শক্তির সাথে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে যাচ্ছেন কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান।
তিনি করোনা ভাইরাস সংক্রমন ও প্রতিরোধে রাতদিন নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। স্বাস্থ্য ঝুঁকি যেখানে প্রতি মুহূর্তে তাড়া করে ফিরে তবুও ভালো থাকুক প্রিয় হোসেনপুর বাসী ! ভালো থাকুক প্রিয় মুখগুলি এই প্রত্যয় নিয়ে সরকারি নির্দেশনায় উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার হাট-বাজারে জনসচেতনতা তৈরী, সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণ, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমুল্য বৃদ্ধিরোধে নিয়মিত হাটবাজার মনিটরিং, অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জরিমানাসহ চালিয়ে যাচ্ছেন তার নানামূখি কার্যক্রম।
এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার (২০ মে) সকালে ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে হোসেনপুর বাজারে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম স্থিতিশীল রাখতে, শপিংমল, বিপনী বিতানে সামাজিক দুরত্ব ও সরকারি স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিতকরণে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান।
এসময় সরকারি আদেশ অমান্যকরণে দন্ডবিধি ১৮৬০ এবং সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ অনুযায়ী মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১০টি মামলায় মোট ৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ কাজে সহযোগিতা করেন কিশোরগঞ্জ ব্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১৪ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী । এসময় উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র আব্দুল কাইয়ুম খোকন, স্যানিটারী ইন্সপেক্টর মোছা: নাহিদা সুলতানা, ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।
সূত্রমতে : নিজের জীবনের নিরাপত্তার কথা না ভেবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, অসহায় মানুষের কাছে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছানো, দ্রব্যমূল্যের বাজার নিয়ন্ত্রণ এবং মানুষকে ঘরে ফেরাতে কাজ করছেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান। যেন প্রতিনিয়ত করোনার সাথে যুদ্ধ করে চলেছেন তিনি। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে তিনি সেনবাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে দিনরাত মাঠে নিরলস ভাবে কাজ করছেন । করোনা মোকাবেলায় সরকারি আদেশ/নির্দেশনা অমান্যকরনে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এ পর্যন্ত তিনি ২৪৬ টি মামলায় মোট ২,৬৪,৮০০ (দুই লক্ষ চৌষট্টি হাজার আটশত) টাকা জরিমানা আদায় করেছেন।
সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ওয়াহিদুজ্জামান জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করণে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। স্বাস্থ্য ঝুঁকি যেখানে প্রতি মুহূর্তে তাড়া করে ফিরে তবুও ভালো থাকুক প্রিয় হোসেনপুর বাসী ! ভালো থাকুক প্রিয় মুখগুলি!! রৌদ্র, বৃষ্টি উপেক্ষা করে, অদৃশ্য শক্তির সাথে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে দায়িত্ব পালন করছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com