সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ১২:২৮ অপরাহ্ন

কামারখন্দে চোর সন্দেহে গাছের সঙ্গে বেধে যুবককে নির্যাতন

খন্দকার মোহাম্মাদ আলী, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২২৫ বার পড়া হয়েছে

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে মধ্যযুগীয় কায়দায় কথিত এক চোরকে গাছের সঙ্গে বেধে পাশবিক নির্যাতনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার জামতৈল কলেজপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

 

ভাইরাল হওয়া ভিডিও ক্লিপে দেখা যায়, ছাগল চুরি সন্দেহে কথিত এক চোরকে রশি দিয়ে তার হাত পা বেধে হাতের নখগুলো প্লাস দিয়ে ভেঙে ফেলছে  স্থানীয় মাছের পোনা উৎপাদনকারী ও ব্যবসায়ী হ্যাপি। এসময় কথিত অজ্ঞাত ওই চোর ব্যাপক চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকে। ভিডিও ক্লিপে নির্যাতনকারী হ্যাপি ওই কথিত ওই চোরকে মারতে থাকে আর বলে, “ওর আঙ্গুল দুইটা ভাঙছি ও অন্য চোরদের নাম না বলা পর্যন্ত ওর আঙ্গুল সবগুলো ভাঙবো তার আগে ছাড়বো না। হ্যাপি নির্যাতিত ওই ব্যক্তিকে বলে, আমি ওকে মেরে ফেলবো না, ওর হাতপা ভাঙবো তারপর ছেড়ে দেব।

 

এ বিষয়ে স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, অজ্ঞাত ওই ব্যক্তিকে ছাগল চোর সন্দেহে গাছের সঙ্গে বেধে বেধম মারপিট করে হ্যাপি ও তার ছেলে। বার বার নিষেধ করা সত্ত্বেও কারো কথা মানেনি হ্যাপি ও ছেলে। স্থানীয়রা কথিত ওই চোরকে না মেরে পুলিশে সোপর্দ করার কথা বললেও ওই ব্যক্তিকে মারতেই থাকে হ্যাপি ও তার ছেলে। নির্যাতনের প্রায় দুই ঘন্টা পর অজ্ঞাত ওই কথিত চোরকে ছেড়ে দেয় হ্যাপি।

 

এ বিষয়ে হ্যাপি জানান, এর আগে আমার একটি ছাগল হারিয়েছে। আবার আরেকটি ছাগল নিয়ে যাওয়ার সময় ছাগল চোরকে ছাগলসহ হাতেনাতে ধরে দুই-একটা চড় থাপ্পড় দিয়ে ছেড়ে দেই। এ বিষয়ে থানা থেকে পুলিশ এসেছিল। আমি বাড়ীতে না থাকায় মুঠোফোনে থানার লোকদের সাথে কথা হয়েছে।

 

এ বিষয়ে কামারখন্দ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। নির্যাতিত ভিকটিম ও নির্যাতনকারী কাউকে পাওয়া যায়নি। তারপরও আমরা বিষয়টি দেখছি কি করা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: