শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৫ পূর্বাহ্ন

গাজীপুরে মাদ্রাসায় চাঞ্চল্যকর জোড়া খুন

ওয়ান নিউজ 24 বিডি ডেস্ক
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর, ২০১৮

গাজীপুর সিটি সংবাদদাতা
মহানগরীর ১৭নম্বর ওয়ার্ডের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় হুফ্ফাজুল কোরআন মাদ্রাসা থেকে পরিচালকের স্ত্রী এবং মাদ্রাসার ছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।নিহতরা হলেন- পরিচালক ইব্রাহিম খলিলের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার (২১) এবং মাদ্রাসার নুরানী বিভাগের ছাত্র মো. মামুন (৮)। বাসন থানার ওসি মো. মুক্তার হোসেন জানান, সকালে চান্দনা এলাকায় জোড়া খুনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। পরিচালক ইব্রাহিম খলিলের ঘরে লাশ দুটি পড়েছিল।মাহমুদার গলায়, গালে ও কানে এবং মামুনের ঘাড়ে, মাথায় ও পিঠে ধারোলো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।ঘরের ভেতর থেকে রক্তমাখা একটি দা এবং দা ধার দেয়ার কাজে ব্যবহৃত একটি কাঠের খণ্ড উদ্ধার করা হয়েছে।

ওসি জানান প্রায় দুই বছর ধরে মাদ্রাসাটি পরিচালনা করে আসছেন ইব্রাহিম খলিল। ওই মাদ্রাসারই একটি কক্ষে স্ত্রী ও দুই ছেলেকে নিয়ে থাকেন তিনি।

ইব্রাহিম জানান, মঙ্গলবার ভোরে স্ত্রী মাহমুদা এবং তার দুই সন্তান হুযায়ফা (৫) ও আবু হুরায়রাকে (৩) বসতঘরে রেখে তিনি পাশের মসজিদে ফজরের নামাজ পড়ার উদ্দেশ্যে বের হয়ে যান। নামাজ শেষে ঘরে ফিরে বিছানার ওপর স্ত্রী মাহমুদা এবং দরজার কাছে মামুনের রক্তাক্ত লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। এ বিষয়ে তিনি আর কিছুই জানেন না।

বাসন থানার এসআই আল আমিন মাদ্রাসার ছাত্র সাব্বিরের বরাত দিয়ে জানান, সোমবার রাতে হুজুরকে (ইব্রাহিম খলিল) উদ্ধার হওয়া দা-টি ধার দিতে দেখেছেন। আর মঙ্গলবার ভোরে ফজরের নামাজে যাওয়ার আগে সাব্বিরকে দিয়ে নিহত মামুনকে মাদ্রাসার অন্য কক্ষ থেকে হুজরের কক্ষে পাঠানোর জন্য ডাকা হয়।

তিনি জানান মাদ্রাসার পরিচালক ইব্রাহিম খলিলের দিকেই সন্দেহের আঙ্গুল তুলেছে ছাত্ররা। তাকে মাদ্রাসায় রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।মামুন ছুটি কাটিয়ে দুদিন আগে সে বাড়ি থেকে মাদ্রাসায় ফেরে বলে পরিবারের সদস্যরা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। পুলিশ জানান তদন্তের মাধ্যমে এই হত্যাকান্ডের সাথে যারা জড়িত তাদেরকে খুঁজে বের করে গ্রেফতার করা হবে।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2021 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: