শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৪:৪৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ খবর :
পুরো ঢাকাকে সিসিটিভি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পাকুন্দিয়া নিরাপদ মাতৃত্ব দিবসপালিত নিকলীতে ধারালো কিরিচের আঘাতে যুবক খুন, আটক ৬ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টূর্ণামেন্টে চ্যাম্পিয়ন পাকুন্দিয়া পৌরসভা আটা ময়দার পাইকারি বাজারে অনিয়মের দায়ে ভোক্তা-অধিকার অধিদপ্তরের জরিমানা নওগাঁয় শুরু হয়েছে আম নামানোর উৎসব পিপি শাহ আজিজুল হক আর নেই, প্রথম জানাযা পাগলা মসজিদে ১৮ বছর পর নতুন নেতৃত্ত্ব পেল হোসেনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ রাত পোহালেই কিশোরগঞ্জ সদর আ.লীগের সম্মেলন, নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ কিশোরগঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্নে অভিযান, তিনটি রেস্টুরেন্টকে জরিমানা

নিকলীতে দুই ইউনিয়নের সংযোগ জীর্ণ সেতুটি এখন মৃত্যুফাঁদ

দিলীপ কুমার সাহা, নিকলি, কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় বুধবার, ১১ মে, ২০২২
নিকলীতে দুই ইউনিয়নের সংযোগ জীর্ণ সেতুটি এখন মৃত্যুফাঁদ

সেতুটির উচ্চতায় প্রায় একশ মিটার দীর্ঘ সেতুর মাঝখানে দাঁড়িয়ে একহাতে লাল গামছা উড়িয়ে যানবাহন থামার সংকেত দিচ্ছেন স্থানীয় বাসিন্দা আছির উদ্দিন। অন্য হাতে সবুজ গামছা নেড়ে দেওয়া হচ্ছে সেতুতে ওঠার সংকেত। তার নির্দেশনা বেশিরভাগ যানবাহন মানলেও মানতে চাচ্ছে না ইটবাহী ট্রাক্টর।

কিশোরগঞ্জের হাওর উপজেলা নিকলীতে নরসুন্দা নদীর ওপর জরাজীর্ণ এই সেতু দিয়ে চলছে হাজার হাজার যানবাহন। সেতুর পাটতন, দুই পাশের র্যালিং ভেঙে পড়েছে, আস্তর খসে বেরিয়ে পড়েছে পিলারের রড। নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও এ সেতুর ওপর দিয়ে চলছে মালবাহী ট্রাক। এতে যেকোনো সময় ঘটতে পারে মারাত্মক দুর্ঘটনা

নিকলী উপজেলা সদরের সঙ্গে মহরকোনা, দামপাড়া ও কামালপুর সংযোগ সেতুটির দুই পাশের র‌্যালিং ভেঙে পড়েছে। পাটাতনের স্থানে স্থানে গর্ত। পলেস্তার খসে বেরিয়ে পড়েছে পিলারের ভেতরের রড। ফাটল দেখা দিয়েছে অ্যাবাটমেন্ট ওয়ালে। ধসে পড়তে পারে যেকোনো সময়। এর ওপর দিয়েই চলছে হাজার হাজার যানবাহন।

সেতুটির ওপর দিয়ে প্রতিদিন পারাপার হচ্ছেন নিকলী, দামপাড়া, কারপাশা, সিংপুরসহ চারটি ইউনিয়নের হাজার মানুষ। খাড়া সেতুতে উঠতে গিয়ে রিকশা ও অটোরিকশা উল্টে মাঝেমধ্যেই ঘটছে দুর্ঘটনা। পঙ্গু হচ্ছেন অনেকে। ঘটছে প্রাণহানিও।

এলাকাবাসী জানান, ভারী যানবাহনের চলাচল নিষেধ করা হলেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পারাপার করছে মালবাহী ট্রাকসহ ছোট ছোট যানবাহন। নিচ দিয়ে চলেছে হাজার হাজার নৌযান। যে কোনো সময় এ সেতুটি ভেঙে পড়ে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই সেতুটি ভেঙে এখানে একটি নতুন সেতু নির্মাণের দাবি জানান এলাকাবাসী।

উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলি আঃ গণি তিনি জানান, ১৯৯৮ সালে ৯৫ মিটার দীর্ঘ ও মাত্র দেড় মিটার প্রস্থের এই ফুট ওভারব্রিজটি নির্মাণ করে এলজিইডি। শুধুমাত্র মানুষ পায়ে হেঁটে চলাচলের জন্য এ সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছিল। পরে মানুষের প্রয়োজনে এটির ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল শুরু হয়।

দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে নতুন সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানালেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ আবু হাসান, মানুষকে সচেতন করতে বিজ্রের পাশে সতর্কতামূলক সাইনবোর্ড লাগানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

উপজেলার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কারার সাইফুল ইসলাম বলেন, আমি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকাকালীন নিকলী –বাজিতপুরের এমপির আফজাল হোসেন সঙ্গে সেতুটি নিয়ে কথা হয়েছে। এরপর এমপি এখানে একটি নতুন সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেন। বর্তমানে জীর্ণ এ সেতুটি ভেঙে প্রায় একশ মিটার সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রাথমিক কাজ শেষ হয়েছে। মাটি পরীক্ষা করা হচ্ছে। আশা করি শিগগিরই সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

নিকলী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আহসান মো. রুহুল কুদ্দুস ভূইয়া জানান, সেতুটি এখন উপজেলাবাসীর জন্য মরণ ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা মানুষকে এ সেতুর ওপর দিয়ে সাবধানে চলাচল করতে উদ্বুদ্ধ করছি। সেতুর দুই পাশে সতর্কিকরণ সাইনবোর্ড লাগানো হয়েছে। তাছাড়াও ব্যক্তিগত উদ্যোগে একজন লোক সেতুর মাঝখানে রাখা হয়। তিনি দুই পাশের যানবাহন নিয়ন্ত্রণ করেন।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2022 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: