শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন

পাকুন্দিয়ায় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় ১৫শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

মোঃ মুঞ্জুরুল হক মুঞ্জু, পাকুন্দিয়া, কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২
পাকুন্দিয়ায় পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষের ঘটনায় ১৫শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় ১ হাজার ৫ শত নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।

রবিবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পাকুন্দিয়া থানার এসআই শাহ কামাল বাদী হয়ে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট জালাল উদ্দিন, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. কামাল উদ্দিনসহ ১৩৯ জনের নাম উল্লেখ করে ১৫০০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় ইতোমধ্যে ২৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পাকুন্দিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সারোয়ার জাহান এ ঘটনার সত্যতা ও মামলার দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে সাংবাদিকদের জানান, গত শনিবার বিএনপির সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলের কোন অনুমতি ছিলনা। তবুও বিএনপির নেতাকর্মীরা সৈয়দগাঁও চৌরাস্তা এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে পৌরসদর বাজারের দিকে আসতে চাইলে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এ সময় পুলিশের উপর তারা ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ও সাধারণ জনগণের জানমাল রক্ষায় রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করা হয়। সংঘর্ষে আমাদের নয়জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

উল্লেখ্য যে, নিত্যপন্যসহ তেল, গ্যাস ও পেট্রোলের লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধি ও ভোলা-নারায়নগঞ্জে দলীয় কর্মী হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে গত শনিবার সকালে পাকুন্দিয়া উপজেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে পৌরসদরের সৈয়দগাঁও চৌরাস্তা এলাকায় জড়ো হতে থাকে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নেতাকর্মীরা সৈয়দগাঁও চৌরাস্তা এলাকা থেকে মিছিল নিয়ে পাকুন্দিয়া পৌরসদর বাজারের দিকে আসতে চাইলে পুলিশের সাথে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়।

পরে পৌরসদরের চরফরাদী নামা বাজার টিএনটি রোড ও মলংশাহ মাজার এলাকায়পুলিশ-বিএনপি-আ’লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে। এতে শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মীসহ, আওয়ামীলীগ ও পুলিশ সদস্য আহত হয়। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মধ্যেও থেমে থেমে এ সংঘর্ষ চলে চার ঘন্টা ব্যাপি। বিএনপি নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে অতিরিক্ত পুলিশসহ পাকুন্দিয়া থানা পুলিশ টিয়ারসেল, রাবারবুলেট ও লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2022 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: