বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৪:৪৫ অপরাহ্ন

বিস্কুট খেয়ে ফেলায় ছোটভাইকে গলা টিপে হত্যা

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় সোমবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৬০ বার পড়া হয়েছে
বিস্কুট খেয়ে ফেলায় ছোটভাইকে গলা টিপে হত্যা

নিজের জন্য আনা বিস্কুট খেয়ে ফেলায় ৬ বছর বয়সী আহসান হাবিবকে গলা টিপে হত্যা করেছে চাচাতো ভাই আসিফ হোসেন (১৫)। হত্যার পর শিশুটির মৃতদেহ বাড়ি থেকে এলাকার একটি ভুট্টা ক্ষেতে ফেলে রেখে আসে ঘাতক।

রবিবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার মহিষডাঙ্গা কারিগরপাড়া গ্রামে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে শিশুটিকে অনেক খোঁজাখুজির পর স্বজনরা রাতে ভুট্টা ক্ষেত থেকে তার মৃতদেহটি উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জড়িত কিশোরঘাতক আসিফ হোসেনকে পুলিশ আটক করেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিজের জন্য আনা বিস্কুট খেয়ে ফেললে রোববার দুপুরে শিশু আহসান হাবিবকে গলা টিপে হত্যা করে তার চাচাতো ভাই আসিফ। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে মরদেহটি পার্শ্ববর্তী একটি ভুট্রার ক্ষেতে রেখে আসে সে। পরে রাতে আসিফ নিজেই স্বজনদের খবর দেয় আহসান হাবিবকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এ ঘটনায় তাৎক্ষনিকভাবে এলাকায় মাইকিং করে সন্ধান চাওয়া হয়। এক পর্যায়ে আহসান হাবিবের বাবা ওই বাড়িতে গিয়ে সন্তানের স্যান্ডেল দেখতে পান। এসময় আসিফকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে হত্যার দায় স্বীকার করে সে। তার কথামত ভুট্রার ক্ষেতে গিয়ে আহসান হাবিবের মরদেহ খুঁজে পান স্বজনরা। একই সঙ্গে আসিফকে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেন তারা।

খবর পেয়ে পুলিশ রাত ১২টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে আহসান হাবিবের মরদেহটি উদ্ধার করে। নিহত আহসান হাবিব ওই গ্রামের মোঃ লুৎফর রহমানের ছেলে। আর ঘাতক আসিফ একই গ্রামের মোঃ নাজির হোসেনের ছেলে। আহসান হাবিব ও আসিফ সম্পর্কে আপন চাচাতো ভাই বলে জানা গেছে।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নজরুল ইসলাম মৃধা এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রোববার দুপুরের দিকে আসিফ এক প্যাকেট বিস্কুট নিজে খাওয়ার জন্য এনে তাদের নির্মাণাধীন নতুন বাড়ির একটি কক্ষের মধ্যে রাখে। এসময় তার চাচাতো ভাই আহসান হাবিব ওই ঘরে গিয়ে কিছু পরিমাণ বিস্কুট খেয়ে ফেলে। এনিয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে আসিফ। এক পর্যায়ে রাগান্বিত হয়ে আহসানকে চর থাপ্পর মারে। এতে আহসান হাবিব উল্টো গালি দিলে তার গলা চিপে ধরে আসিফ। শ্বাসরুদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়।

মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। এই ঘটনার সাথে জড়িত আসিফকে আটক করা হয়। তাকে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি।

এদিকে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ সাইদুর রহমান জানান, আসিফের বাবা বিদেশে থাকেন, তাই আসিফ এলাকায় উশৃঙ্খল জীবন যাপন করতো। এ জন্য এলাকাবাসীও তার প্রতি বিরূপ।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2021 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: