বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৭:১২ অপরাহ্ন

নোটিশ :
আমাদের নিউজ সাইটে খবর প্রকাশের জন্য আপনার লিখা (তথ্য, ছবি ও ভিডিও) মেইল করুন onenewsdesk@gmail.com এই মেইলে।
সর্বশেষ খবর :
চুরি করা গরু জবাই করে মাংস পাচারকালে আটক-২ মৌলভীবাজারে কোটা সংস্কারের নামে দেশব্যাপী নৈরাজ্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন ‘কোটা আন্দোলনকারীদের আলোচনার প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী, আজকেই বসতে প্রস্তুত’ মৌলভীবাজারে জেলা জামায়াতের আমীর গ্রেফতার সব অনভিপ্রেত ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্ত হবে: প্রধানমন্ত্রী হঠাৎ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষামন্ত্রী আমার বিশ্বাস উচ্চ আদালতে ন্যায়বিচার পাবে শিক্ষার্থীরা: প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার আহ্বান পুলিশের যাত্রাবাড়ীতে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ, মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারের টোল প্লাজায় আগুন

ভৈরবে বেড়েছে রেলওয়ে জংশনের রাজস্ব

ওয়ান নিউজ 24 বিডি ডেস্ক
  • আপডেট সময় সোমবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
  • ৪৯০ বার পড়া হয়েছে

হৃদয় আজাদ :
কিশোরগঞ্জের ভৈরব বাজার রেলওয়ে জংশনের রাজস্ব পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। টুঙ্গি-ভৈরব বাজার রেলপথে ডাবল লাইন হওয়ার ফলে যাত্রীর পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়ে বেড়েছে রাজস্বের পরিমাণও। অন্যদিকে ভৈরবের উৎপাদিত মৎস ও পাদুকা (জুতা) চট্টগ্রাম, নোয়াখালি,ফেনি, চৌমোহনি, দেওয়ানগঞ্জ ও সিলেটসহ বিভিন্ন জেলায় পরিবহণ করায় ভৈরব রেলওয়ে জংশনের পার্সেল খাতে রাজস্ব বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

ভৈরব রেলওয়ে জংশন সূত্রে জানা গেছে, ডাবল লাইনের পর ভৈরব রেলওয়ে জংশন থেকে যাত্রী ও পার্সেলের পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। চলতি বছরের প্রথম মাসের রাজস্বের পরিমাণ এক কোটি ছয়লক্ষ আশি হাজার পাঁচশত তিপ্পান্ন টাকা। ডাবল লাইন উদ্বোধনের আগে ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে যার পরিমাণ ছিল সাতকোটি দশলক্ষ তিনহাজার একশত ঊনসত্তর টাকায়।

২০১৬ সালে মার্চ মাসে ডাবল লাইন উদ্বোধনের পর ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে মোট আয়ের পরিমাণ ছিল নয় কোটি তেত্রিশ লক্ষ একান্ন হাজার সাতশত চোরাশি টাকা। যার ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে বৃদ্ধি পেয়ে মোট পরিমাণ দাঁড়ায় এগারো কোটি চোয়াল্লিশ লক্ষ পচানব্বই হাজার পাচঁশত ছাব্বিশ টাকা।

গত বছরের জানুয়ারী মাসে যাত্রী ও পার্সেল খাতে রাজস্বের পরিমাণ ছিল বিরানব্বই লক্ষ বাষট্টি হাজার চোয়াল্লিশ টাকা। ফেব্রুয়ারী মাসের পরিমাণ পচানব্বই লক্ষ ঊনপঞ্চাশ হাজার দুইশত ছত্রিশ টাকা, মার্চ মাসের পরিমাণ এক কোটি নয়লক্ষ একাশি হাজার নয়শত ত্রিশ টাকা, এপ্রিল মাসের পরিমাণ নিরানব্বই লক্ষ সাতাশ হাজার নয়শত বিরাশি টাকা, মে মাসের পরিমাণ তিরানব্বই লক্ষ একচল্লিশ হাজার আটশত ছিয়াশি টাকা, জুন মাসের পরিমাণ বিরানব্বই লক্ষ সাতাশ হাজার চারশত একান্ন টাকা, জুলাই মাসের পরিমাণ এক কোটি চারলক্ষ তিরানব্বই হাজার সাতশত ছয় টাকা, আগষ্ট মাসের পরিমাণ এক কোটি তিন লক্ষ চৌষট্টি হাজার ছয়শত তিরাশি টাকা, সেপ্টেম্বর মাসের পরিমাণ নিরানব্বই লক্ষ সাইত্রিশ হাজার আটশত সাতষট্টি টাকা, অক্টোবর মাসের পরিমাণ এক কোটি সাতলক্ষ একষট্টি হাজার পাচঁশত একষট্টি টাকা, নভেম্বর মাসের পরিমাণ আটানব্বই লক্ষ আটহাজার একশত ঊনসত্তর টাকা ও ডিসেম্বর মাসের পরিমাণ নব্বইলক্ষ একাশি হাজার দুইশত ঊনচল্লিশ টাকা।

ভৈরব রেলওয়ে জংশনের সদ্য যোগদানকৃত স্টেশন মাস্টার কামরুজ্জামান জানান, মানুষ এখন ট্রেনমুখী। ডাবল লাইন হওয়ার পর ট্রেন সমূহ যথারীতি সময়সূচী অনুযায়ী চলাচল করায় সাধারণ মানুষ ট্রেনমুখী হয়েছে। আগে একটি ট্রেন আরেকটি ট্রেনকে ক্রসিং এর জন্য বিলম্ব হইত। ডাবল লাইন হওয়ার পর এই বিড়ম্বনা আর নেই। তাই দিনদিন ট্রেন ভ্রমণে স্বাচ্ছন্দতা ফিরে আসছে। সামনে ভৈরব রেলওয়ে জংশনের রাজস্ব বৃদ্ধি আরো বাড়বে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2024 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com