রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:০৩ অপরাহ্ন

২ মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড কুলিয়ারচরের দুই গ্রাম

আলী হায়দার, কুলিয়ারচর, কিশোরগঞ্জ
  • আপডেট সময় বুধবার, ২৫ আগস্ট, ২০২১
২ মিনিটের ঝড়ে লন্ডভন্ড কুলিয়ারচরের দুই গ্রাম

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে মাত্র ২ মিনিটের ঝড়ে পাল্টে গেছে দুইটি গ্রামের চেহারা। মাঝ রাতের আচমকা ঝড়ে উড়ে গেছে গ্রামের অসংখ্য ঘর, হাঁস মুরগীর খামারের টিনের চাল এবং বিদ্যুৎ এর খুঁটি উপড়ে গিয়ে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে কয়েক গ্রাম।

মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) দিবাগত রাত ১টার দিকে কুলিয়ারচর উপজেলার সালুয়া ও রামদী ইউনিয়নের সীমন্তবর্তী মাছিমপুর ও মনোহরপুর এই দুই গ্রামের কিছু অংশজুড়ে এ ঝড় বয়ে যায়।

সরজমিনে গিয়ে গিয়ে দেখা যায়, বড় বড় বিশাল আকৃতির শতাধিক গাছগাছালির, বিদ্যুৎ এর খুঁটি ভেঙে ঘর-বাড়ি ও রাস্তা ঘাটের উপরে পড়ে আছে। আচমকা এই ঝড়ে অনেকের ঘরের টিনের চাল উড়ে যাওয়ায় ঝড়ের পরবর্তী সময়ে সারারাত বৃষ্টিতে ভিজে খোলা আকাশের নিছে মানবেতর জীবন যাপন করছে ।

মাছিমপুর গ্রামের মোছা. সুচি ভুঁইয়া (৩২) জানান, ঘুমের মধ্যে রাত ১টার দিকে হঠাৎ কয়েক সেকেন্ডের একটি ঝড় এসে আমাদের ঘরে বিকট শব্দ হানা দেয়। এসময় বিশাল একটি গাছ আমার ঘরের উপরে পড়লে, ঘর ভেঙে আমার ও আমার মেয়ের উপড়ে পরে । এসময় আমরা বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করতে থাকি কিন্তু ঝড়ের শব্দ কেউ আমাদের ডাক শোনিনি । তখন মনে হয়েছিলো এটাই বোধহয় আমার শেষ রাত। একপর্যায়ে পাশের বাড়ির মানুষজন এসে ঘরের দরজা কেটে আমার মেয়ে ও আমাদেরকে ঘর থেকে উদ্ধার করে। এই ঝড় আমার ঘরে থাকা ফ্রিজ, আলমারি, সৌরবিদ্যুৎ সহ এক কথায় আমার সারাজীবনের সকল সম্বল বিলিন করে দিয়েছে।

মনোহরপুর গ্রামের জসিম খাঁন (৫০) বলেন, গত রাতের আচমকা ঝড়ে আমার দুইটি গরুর ঘর ও আমার বসত ঘরের চিনের চালা উড়ে গেছে এবং অসংখ্য গাছগাছালি উপড়ে গেছে এবং আমার চাচাতো ভাইয়ের একটি টিনের ঘর পুরো বিলিন হয়ে গেছে। হঠৎ করে এমন ভয়াবহ ঝড় আমার জীবনে আমি দেখিনি।

এই বিষয়ে সালুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ মাহবুবুর রহমান বলেন, ঝড়ের খবর পেয়ে সকাল আমি ঘটনা স্থল পরিদর্শন করি। তবে ঠিক কী পরিমান ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এই বিষয়টি এখনও নির্ধারণ করা যায়নি। তবে বিষয়টি আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসারকে অবগত করেছি। তারাও ঘটনা স্থল পরিদর্শন করবে বলে জানায়। এবং যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের প্রত্যেককে ক্ষতির পরিমাণ উল্লেখ্য করে ইউনিয়ন পরিষদ বরাবর আবেদন করতে বলেছি।

এই বিষয়ে রামদী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিনকে একাধিকবার মুটোফোনে যোগাযোগ করা হলেও, মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2021 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: