সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ১২:৩১ অপরাহ্ন

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় অবৈধ বালু উত্তোলন ও বিপণন রোধে ভ্রাম্যমান আদালত, গ্রেফতার ১০

মো: আল-আমীন
  • আপডেট সময় রবিবার, ৪ অক্টোবর, ২০২০
  • ১৯৩ বার পড়া হয়েছে
কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার অন্তর্গত পুরাতন ব্রম্মপুত্র নদ থেকে অবৈধ ও অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলনের ফলে অত্র এলাকার নদী তীরবর্তী স্থানগুলোতে নদী ভাঙ্গন শুরু হয়েছে।
.
শনিবার (৩ অক্টোবর) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের বিশেষ নির্দেশনা ও কিশোরগঞ্জ জেলার মাননীয় জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী এর নির্দেশনা মোতাবেক রাত ১২ ঘটিকা হতে ভোর ৫ টা পর্যন্ত অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি), পাকুন্দিয়া এ কে এম লুৎফর রহমান এবং বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট  মোঃ ফজলে রাব্বি৷ এসময় অভিযান পরিচালনায় সহায়তা করে কিশোরগঞ্জ জেলা পুলিশ ও র‍্যাবের দুইটি চৌকস দল এবং BIWTA।
.
এ সময় অবৈধ বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত কয়েকটি বাল্কহেড ড্রেজারসহ বালু বহনকারী কার্গো ট্রলার অপসারণ করা হয়। এছাড়াও অবৈধ বালু উত্তোলনের দায়ে ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয় এবং অভিযুক্ত প্রত্যেককে বালুমহাল ও মাটি ব্যাবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ১৫(১) ধারা মোতাবেক তিন মাসের কারাদণ্ড এবং বিভিন্ন পরিমাণে অর্থদণ্ড করা হয়।
.
জেলা প্রশাসন কিশোরগঞ্জ জানায় অবৈধ ও অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলনের ফলে নদী ভাঙ্গনসহ সংশ্লিষ্ট এলাকার পরিবেশের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। কতিপয় দুষ্কৃতকারী অতীব গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প সংলগ্ন এলাকায় এবং সরকারের বালুমহাল হিসেবে ঘোষিত নয় এমন এলাকা থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে। এছাড়া কোনো কোনো অনুমোদিত ইজারাদারও বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন-২০১০ অনুসরণ না করে বালু উত্তোলন করছেন। ফলে পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতিসহ সংশ্লিষ্ট এলাকায় নদীভাঙন বৃদ্ধি পাচ্ছে ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ও অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2020 Onenews24bd.Com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
%d bloggers like this: