বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৪:১২ পূর্বাহ্ন

ভূয়া প্রশ্নপত্র প্রদান চক্রের এক সদস্যকে আটক করেছে-র‌্যাব

ওয়ান নিউজ 24 বিডি ডেস্ক
  • আপডেট সময় শনিবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

নেত্রকোনা থেকে মো. মহসীন আলম সাজু (১৬) নামে ভূয়া প্রশ্নপত্র প্রদানের প্রতারক চক্রের এক সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্প। শুক্রবার(১ ফেব্রুয়ারি) বিকালে নেত্রকোনা সদরের কাজী নজরুল ইসলাম রোড বিলপাড় এলাকার সায়মন ছাত্রাবাস থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক হওয়া প্রশ্নপত্র প্রতারক চক্রের সদস্য মো. মহসীন আলম সাজু নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানার গসড়া গ্রামের মো. সাজ্জাদ হোসেনের ছেলে।

র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার বিএন এম শোভন খান জানান, ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হতে যাওয়া এসএসসি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে এবং প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে র‌্যাব কর্তৃক সামাজিক যোগাযোগের ওয়েব সাইটগুলোতে তদারকি বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং পরীক্ষার কেন্দ্র ও কোচিং সেন্টার সমূহ গোয়েন্দা নজরদারির আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে র‌্যাব সর্বাত্মক সচেষ্ট রয়েছে।

এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে তদারকি করে ভূয়া প্রশ্নপত্র প্রদানের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতকারী প্রতারক চক্রের একটি দলকে সনাক্ত করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় তাদের অবস্থান সনাক্ত করে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ এর একটি আভিযানিক দল শুক্রবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৫টায় নেত্রকোনা সদরের কাজী নজরুল ইসলাম রোড বিলপাড় এলাকার সায়মন ছাত্রাবাসে অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানের সময় সায়মন ছাত্রবাস থেকে ভূয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস সংক্রান্ত প্রতারক চক্রের সদস্য মোঃ মহসীন আলম সাজ কে আটক করা হয়। আটক মোঃ মহসীন আলম সাজু এর নিকট হতে দুইটি সিমকার্ডসহ একটি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক মোঃ মহসীন আলম সাজু প্রশ্নপত্র ফাঁস সংক্রান্ত প্রতারক চক্রের সহিত সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করে।

এসএসসি পরীক্ষাকে পুঁজি করে প্রশ্নপত্র ফাঁস সংক্রান্ত প্রতারক চক্রটি বিভিন্ন ধরণের প্রতারণা মূলক কার্যক্রমে লিপ্ত ছিল। চক্রের বাকি সদস্যকে অবিলম্বে গ্রেপ্তারের জন্য র‌্যাবের আভিযানিক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

আটক হওয়া প্রশ্নপত্র প্রতারক চক্রের সদস্য মোঃ মহসীন আলম সাজুর বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন-২০০৬ (সংশোধনী-২০১৩) এর অধীনে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও এম শোভন খান জানিয়েছেন।

Tahmina Dental Care

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

এই বিভাগের আরো খবর

© All rights reserved © 2022 Onenews24bd.Com
Site design by Le Joe
%d bloggers like this: